ঢাকাবুধবার , ৩০ নভেম্বর ২০২২
  1. অন্যান্য
  2. আন্তর্জাতিক
  3. খেলাধুলা
  4. দেশজুড়ে
  5. পজিটিভ বাংলাদেশ
  6. ফটো গ্যালারি
  7. ফিচার
  8. বিনোদন
  9. ভিডিও গ্যালারি
  10. সারাদেশ
  11. সাহিত্য
আজকের সর্বশেষ সবখবর

আপাতত আওয়ামী লীগের কোনো বিকল্প নেই- এমপি তৌফিক

প্রতিবেদক
Kolom 24
নভেম্বর ৩০, ২০২২ ৩:১৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

কিশোরগঞ্জ-৪ (ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম) আসনের সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক বলেছেন, আপাতত আওয়ামী লীগের কোনো বিকল্প নেই। উন্নয়নের রথ থামাতে না চাইলে আপনারা আওয়ামী লীগের সর্মথন করুন। আগামী সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে ভোট দিয়ে সরকার গঠন করতে দিন। অন্য কোনো দলের সার্মথ্য নেই এ দেশ পরিচালনা করার।

বুধবার (৩০ নভেম্বর) দুপুরে জেলা শহরের গাইটাল এলাকার অতিথি কমিউনিটি সেন্টারে গণপ্রকৌশল দিবস ও ইন্সটিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশের ৫২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক বলেন, কিশোরগঞ্জের বহু বেকার যুবককে কারিগরি প্রশিক্ষণ দিয়ে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করে দিয়েছে এ সরকার। কাজের কোনো নিন্দা নাই। টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যে মূল্য সাশ্রয়ী, নির্ভরযোগ্য ও টেকসই আধুনিক জ্বালানির নিশ্চয়তা অপরিহার্য। আর তাই সর্বস্তরের মানুষের জন্য সরকার কাজ করছে।

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন ইন্সটিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ কিশোরগঞ্জ জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম আকন্দ। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন কিশোরগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মোঃ পারভেজ মিয়া। বক্তব্য দেন, আইডিইবি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী ফারুক আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রকৌশলী মোঃ আনিসুর রহমান, কিশোরগঞ্জ ছাত্র পেশাজীবি পরিষদের সভাপতি প্রকৌশলী হারুন উর রশিদ, ইমারত নির্মাণ প্রকৌশলী কল্যাণ সংগঠনের সভাপতি মোঃ কামরুজ্জামান, বঙ্গবন্ধু ডিপ্লোমা পেশাজীবি সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক জুয়েল আহমেদ, কিশোরগঞ্জ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের রিফ্রেজারেশন এন্ড এয়ারকন্ডিশন বিভাগের প্রধান আলমগীর হোসেন, বাংলাদেশ কারিগরি ছাত্র পরিষদের সভাপতি দেলোয়ার হোসেন পিয়াস, সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইমন প্রমুখ। সভা সঞ্চালনায় ছিলেন কিশোরগঞ্জ ইমারত নির্মাভ প্রকৌশলী কল্যাণ সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক জি.এম শফিউল আলম আরজু।

আলোচনা সভার আগে একটি বর্ণাঢ্য র‍্যালি জেলা শহরের গাইটাল এলাকার অতিথি কমিউনিটি সেন্টার থেকে বের হয়ে শহরের বিভিন্ন স্থান প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে এসে শেষ হয়।