ঢাকারবিবার , ১৮ ডিসেম্বর ২০২২
  1. অন্যান্য
  2. আন্তর্জাতিক
  3. খেলাধুলা
  4. দেশজুড়ে
  5. পজিটিভ বাংলাদেশ
  6. ফটো গ্যালারি
  7. ফিচার
  8. বিনোদন
  9. ভিডিও গ্যালারি
  10. সারাদেশ
  11. সাহিত্য
আজকের সর্বশেষ সবখবর

রাজাকারদের গাড়িতে পতাকা উড়েছে আর তাদের স্যালুট দিতে হয়েছে- ডিবি প্রধান

প্রতিবেদক
Kolom 24
ডিসেম্বর ১৮, ২০২২ ৪:৪৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

কিশোরগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধা পুলিশ সদস্যদের সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। মহান বিজয় দিবস ও বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে রবিবার (১৮ ডিসেম্বর) দুপুরে পুলিশ লাইন্সে জেলা পুলিশের আয়োজনে এ সংবর্ধনা দেয়া হয়। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ রাসেল শেখ।

সম্মানিত অতিথি ছিলেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (উত্তর) বিভাগের যুগ্ম-কমিশনার, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ মহাপরিদর্শক (অতিরিক্ত ডিআইজি) মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. জিল্লুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ আফজল, গুরুদয়াল সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ জামালুর রহমান, জেলা সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার সৈয়দ ফরহাদ, কিশোরগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মোঃ পারভেজ মিয়া, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মো. আসাদ উল্লাহ প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মো. মোস্তাক সরকার।

এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর ও হোসেনপুর সার্কেল) মোঃ আল-আমিন হোসাইন, কিশোরগঞ্জ জেলা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সভাপতি হেলাল উদ্দিন মানিক, জেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক এনায়েত করিম অমি, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাসুম খান, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আওলাদ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আবদুস সাত্তার, কিশোরগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ দাউদ প্রমুখসহ জেলা পুলিশের অন্যান্য উর্ধতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

সভাপতির বক্তব্যে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ রাসেল শেখ বলেন, পুলিশ হলো সমাজের অক্সিজেনের মতো। অক্সিজেন ছাড়া যেমন আমরা বাঁচবো না ঠিক তেমনি দেশ, সমাজ পুলিশ ছাড়া বাঁচবে না। দেশের মানুষের জন্য আমরা পুলিশ সদস্যরা ছিলাম, আছি, থাকবো। এ দেশের মানুষের জন্য প্রাণ দিতেও আমরা দ্বিধা করিনা আর কখনো করবোও না।

পুলিশ সুপার বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধে পুলিশের পক্ষ থেকে প্রথম সশস্ত্র প্রতিরোধ গড়ে তোলা হয়েছিল। মুক্তিযুদ্ধ থেকে শুরু করে দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব রক্ষায় পুলিশ বাহিনী সব সময়ে গৌরবোজ্জ্বল ভূমিকা পালন করে আসছে।

সম্মানিত অতিথির বক্তব্য ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) ডিবি প্রধান হারুন অর রশীদ বলেন, এ দেশ শুধুমাত্র নয় মাসে স্বাধীন হয়নি। এর পিছনে রয়েছে ইতিহাস। আমাদের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যৌবনের সবটা সময় দিয়েছেন স্বাধীনতার প্রেক্ষাপট তৈরি করতে। স্বাধীনতা পাওয়ার পরও এ দেশে রাজাকারদের গাড়িতে জাতীয় পতাকা উঠেছে। ওই সময়ে সেই গাড়িতে থাকা রাজাকারদের স্যালুট দিতে হয়েছে আমাদের। এ দেশে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার হয়েছে। এ দেশে শেখ মুজিবুর রহমানের অবদান প্রচার করতে হবে।

ডিএমপির ডিবি প্রধান হারুন অর রশীদ বলেন, আমাদের সত্যিকারের ইতিহাস বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বঙ্গবন্ধু দেশকে শুধু স্বাধীনতা এনে দেন নাই অস্তিত্বও দিয়েছে। যে দেশ বীরদের সম্মান দিতে পারে না সে দেশ উন্নতি করতে পারবে না। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর দেশ বিরোধীরা প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলো। যারা ভেবেছিল দেশকে ধ্বংস করবে তারা ভ্রান্ত ধারণাতে ছিল।

উল্লেখ্য যে, অনুষ্ঠানে জেলার বাসিন্দা মোট ৩৫ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা পুলিশ সদস্যকে সংবর্ধনা দেয়া হয়।