সাংগঠনিকভাবে কিশোরগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ অত্যন্ত দুর্বল- মির্জা আজম এমপি

2 months ago
4:05 pm
266
বাংলাদেশ রাজনীতি সাংগঠনিকভাবে কিশোরগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ অত্যন্ত দুর্বল- মির্জা আজম এমপি

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি বলেছেন, দীর্ঘ দিনের প্রত্যাশিত এই বর্ধিত সভা। ইতিমধ্যে দুইবার কোভিড-১৯ এর কারণে তারিখ পরিবর্তন হয়েছে। ঢাকা বিভাগের ১৭টি সাংগঠনিক জেলা। কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের রিপোর্ট অনুযায়ী কিশোরগঞ্জ জেলা সাংগঠনিকভাবে অত্যন্ত দুর্বল। এই দুর্বল কাঠামো নিয়েই আমরা কাজ করছি। কিশোরগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগে ২৫ বছর ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগে ২৭ বছর যাবত কোনো সম্মেলন হয় না। এখানে সাংগঠনিক কার্যক্রম কিভাবে চলছে তা কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের প্রশ্ন? দীর্ঘ ২৭ বছর, ২৫ বছর, ২০ বছর, ১৮ বছর যাবত এ জেলার বিভিন্ন উপজেলায় সম্মেলন হয় না এমনটা বাংলাদেশের কোথাও নেই।

সোমবার (২১ মার্চ) জেলা শিল্পকলা একাডেমির মিলনায়তনে কিশোরগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বৃহত্তর ময়মনসিংহের সন্তান হিসেবে আমি গর্ববোধ করি। কিশোরগঞ্জের মাটি আওয়ামী লীগের উর্বর মাটি। এ মাটিতে জন্মগ্রহণ করেন বাংলাদেশের অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম, সাবেক রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান, রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। এমনকি বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতার জন্মও এ জেলায়। এখানে সাংগঠনিক অবস্থা এমন হবে তা আওয়ামী লীগ করা কেউ ভাবতেও পারি না।

মির্জা আজম বলেন, আগামী জাতীয় নির্বাচনের আগেই সম্মেলন সম্পন্ন করে নতুন কমিটি দেয়া হবে। এ বর্ধিত সভায় আমরা নিজেদের নিয়ে আলোচনা ও সমালোচনা করে সামনে কিভাবে পথ চলবো তা নির্ধারন করবো।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কামরুল আহসান শাহজাহানের সভাপতিত্বে বর্ধিত সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক শামসুন নাহার চাঁপা, কার্যনির্বাহী সদস্য রিয়াজুল কবীর কাউসার। বিশেষ বর্ধিত সভার পরিচালনায় ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ আফজল।

এছাড়াও এ সময় উপস্থিত ছিলেন, কিশোরগঞ্জ-১ (সদর-হোসেনপুর) আসনের এমপি ডাঃ সৈয়দা জাকিয়া নূর লিপি, কিশোরগঞ্জ-৪ (ইটনা-মিঠামইন-অস্টগ্রাম) আসনের এমপি রেজওয়ান আহমেদ তৌফিক, কিশোরগঞ্জ-২ (পাকুন্দিয়া-কটিয়াদী) আসনের এমপি নূর মোহাম্মদ, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জিল্লুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশফাকুল ইসলাম টিটু, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক এনায়েত করিম অমি প্রমুখ।