নাটোরে সাড়ে তিন হাজার শিক্ষার্থী পেল বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্নজীবনী’

7 months ago
7:42 pm
9
দেশজুড়ে রাজশাহী নাটোরে সাড়ে তিন হাজার শিক্ষার্থী পেল বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্নজীবনী’

৭ই মার্চ উদযাপন এবং মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে এক ব্যতিক্রম উদ্যোগ নিয়েছেন নাটোর-২ আসনের সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল। একদিনে সাড়ে তিন হাজার কপি ‘বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্নজীবনী’ গ্রন্থ তুলে দেন কোমলমতি শিক্ষার্থীদের মাঝে। সেই সাথে বিতরণ করা হয় ডিজিটাল হ্যান্ড স্যানিটাইজার মেশিন। বঙ্গবন্ধুকে জানতে বইটি অন্যতম সহায়ক হবে বলে উচ্ছ্বাসিত শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উদযাপন এবং মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে নাটোর শংকর গোবিন্দ চৌধুরী স্টেডিয়ামে মুজিব শতবর্ষ উদযাপন কমিটির আয়োজনে রবিবার সকাল সাড়ে দশটায় শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নাটোর-২ আসনের (নাটোর সদর ও নলডাঙ্গা) সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল।

জেলা প্রশাসক মোঃ শাহরিয়াজ সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। পুলিশের রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি মোঃ আব্দুল বাতেন প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা, নাটোর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট সাজেদুর রহমান খান, জেলা শিক্ষা অফিসার রমজান আলী আকন্দ, জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও জজকোর্টের পিপি এডভোকেট সিরাজুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মর্ত্তোজা আলী বাবলু ও দপ্তর সম্পাদক দিলীপ কুমার দাস। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন জেলা আওয়ামী লীগের উপ দপ্তর সম্পাদক প্রভাষক আকরামুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল বলেন, বঙ্গবন্ধুর সাতই মার্চের ১৮ মিনিটের ঐতিহাসিক ভাষণ আমাদের মুক্তিযুদ্ধের দিক নির্দেশনা। ২০১৭ সালের ৩০ অক্টোবর বঙ্গবন্ধুর ভাষণকে বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে ইউনেস্ক। কৃতজ্ঞ জাতি শ্রদ্ধায়-ভালবাসায় বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালন করছে। বঙ্গবন্ধুর লেখা ‘অসমাপ্ত আত্নজীবনী’ বইটি পাঠ করে শিক্ষার্থীরা বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামী জীবন এবং মুক্তিযুদ্ধের প্রেক্ষাপট ও দেশের ইতিহাস পড়ে সমৃদ্ধ হবে এবং দেশপ্রেমে উজ্জীবিত হবে বলে আশা প্রকাশ করেন। সেই সাথে ‘বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্নজীবনী’ বই থেকে প্রশ্নের মাধ্যমে কুইজ বিজয়ী ৩০ জন শিক্ষার্থীদের মাঝে পরবর্তীতে উন্নতমানের ল্যাপটপ ও ট্যাব উপহার হিসাবে প্রদান করবেন বলে ঘোষণা দেন সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল।

নিরাপদ সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে শিক্ষার্থী এবং শিক্ষকবৃন্দ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহন করেন এবং অতিথিবৃন্দের কাছ থেকে উপহার গ্রহন করেন।