কুলিয়ারচরে রাস্তা নির্মাণকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে এক ব্যক্তির মৃত্যু

1 week ago
2:50 pm
13
দেশজুড়ে ঢাকা কুলিয়ারচরে রাস্তা নির্মাণকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে এক ব্যক্তির মৃত্যু

“কুলিয়ারচরে রাস্তা নির্মাণকে কেন্দ্র করে দু’দল গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় গুরুতর আহত মো. নুরু মিয়া (৪৫) অবশেষে মারা গেছেন। ঢাকা ধানমন্ডি গ্রীন লাইফ হাসপাতালের আইসিওতে লাইফ সাপোর্টে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় তিনি মারা যান।

নিহত নূরু মিয়া উপজেলার গোবরিয়া আব্দুল্লাপুর ইউনিয়নের লক্ষীপুর ছমিউল্লা পাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল হাসিম ওরফে নির্ভাসা মিয়া পুত্র।

জানা গেছে, লক্ষীপুর বাজার ব্রিজ থেকে লক্ষীপুর মাতুয়ারকান্দা পর্যন্ত নির্মাণধীন একটি রাস্তা নিয়ে প্রায় দেড় বছর যাবৎ স্থানীয় লক্ষীপুর মাতুয়ারকান্দা ও লক্ষীপুর কোনাবাড়ী গ্রামবাসীর মধ্যে থেমে থেমে সংঘর্ষ চলে আসছিল। দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে নূরু মিয়া সহ অন্তর (১৮), তানভীর (১৮) ও বোরহান (২০) ছিটা গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হন। এছাড়া সোহরাব (২৬), মনোয়ারা (৩২), রিমন (২৪), আনন্দ (১৬) ও বকুল (৪৫) সহ উভয় পক্ষের কমপক্ষে ১৫/২০ জন আহত হন। আহতদের মধ্যে স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় নূরু মিয়া, তানভীর (১৮), বোরহান (২০), সোহরাব (২৬), মনোয়ারা (৩২), রিমন (২৪) ও আনন্দ (১৬) কে কুলিয়ারচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক নূরু মিয়া, অন্তর ও তানভীরকে ওইদিন সন্ধ্যায় ভাগলপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে প্রেরণ করেন। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক আরো উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের তিন জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। নূরু মিয়ার অবস্থা আশংকাজনক থাকায় হাসপাতালের আইসিওতে সিট খালী না থাকায় ওইদিন রাতেই তাকে ঢাকা ধানমন্ডি গ্রীন লাইফ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। গ্রীন লাইফ হাসপাতালের আইসিওতে ৬দিন লাইফ সাপোর্টেথাকা অবস্হায় তিনি মারা যান।

এ ব্যাপারে কুলিয়ারচর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এ.কে.এম সুলতান মাহমুদ নূরু মিয়ার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন।”…