মুসলিম নেতাদের সময়সীমা বেঁধে দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ

7 days ago
9:41 pm
11
আন্তর্জাতিক ইউরোপ মুসলিম নেতাদের সময়সীমা বেঁধে দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ

ফ্রান্সের ‘প্রজাতন্ত্রের মূল্যবোধের সনদ’ মেনে নেয়ার জন্য দেশটির মুসলিম নেতাদের সময়সীমা বেঁধে দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। এজন্য ফ্রান্স কাউন্সিল অব দ্য মুসলিম ফেইথ (সিএফসিএম)কে ১৫ দিনের সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছে। খবর বিবিসি’র।

সিএফসিএম ইমামদের নিয়োগ এবং কার্যক্রম নিয়ন্ত্রণ করতে ‘ন্যাশনাল কাউন্সিল অব ইমাম’ নামে একটি প্রতিষ্ঠান গড়তে যাচ্ছে ফ্রান্স। এটি ইমামদের আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতি দেয়ার এবং তাদের অনুমতিপত্র বাতিল করতে পারবে।

গত বুধবার (১৮ নভেম্বর) এলিসি প্যালেসে প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জেরাল্দ দারমানিন সিএফসিএম নেতার সাথে বৈঠক করেন। ওই বৈঠকে ন্যাশনাল কাউন্সিল অব ইমামস প্রতিষ্ঠা করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

এছাড়া ‘প্রজাতন্ত্রের মূল্যবোধের সনদ’ নামে প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে:

* হোম-স্কুলিং বা ঘরে থেকে পড়ালেখা চালিয়ে যাওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা এবং ধর্মীয় কারণে সরকারি কর্মকর্তাদের হুমকি দেয়া বা ভয় দেখানো হলে আরও কঠিন শাস্তির বিধান।

* নতুন আইনের অধীনে শিশুদের একটি পরিচিতি বা আইডেন্টিফিকেশন নম্বর প্রদান করা, যার মাধ্যমে নিশ্চিত করা যাবে যে তারা স্কুলে যাচ্ছে কি-না। যেসব অভিভাবক এই আইন অমান্য করবে, তাদের বড় অঙ্কের জরিমানা-সহ ছয় মাস পর্যন্ত কারাদণ্ডের শাস্তি দেয়া হতে পারে।

* কোনো ব্যক্তির ব্যক্তিগত তথ্য, যার মাধ্যমে তার ক্ষতি করা সম্ভব হতে পারে, সেই ধরণের তথ্য শেয়ার করার ওপর নিষেধাজ্ঞা।

যদিও এই প্রস্তাবিত খসড়া আইনটি নিয়ে ৯ ডিসেম্বর ফরাসী মন্ত্রিসভায় আলোচনা হবে।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, ওই সনদটিতে এমন কথা থাকছে যে ইসলাম একটি ধর্ম এবং কোনও রাজনৈতিক ধারা নয়। মুসলিম গোষ্ঠীগুলোতে বিদেশি হস্তক্ষেপও নিষিদ্ধ করা হয়েছে সনদে।

দেশটিতে নবী মুহাম্মদ (স.)-এর ব্যঙ্গচিত্র নিয়ে ক্লাসে আলোচনা করায় এক শিক্ষক হত্যাকাণ্ডের শিকার হন। এ ঘটনার এক মাস পর মুসলিম নাগরিকদের ওপর নতুন আচরণবিধি প্রয়োগ করতে যাচ্ছে ফ্রান্স।