মারণাস্ত্র ব্যবহারের অনুমোদন দিলো পেন্টাগন

1 week ago
7:20 pm
11
আন্তর্জাতিক মারণাস্ত্র ব্যবহারের অনুমোদন দিলো পেন্টাগন

মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগ পেন্টাগন আমেরিকার ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ক্যাপিটল হিলের পুলিশকে সহায়তায় ন্যাশনাল গার্ড সেনাদের মারণাস্ত্র ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে।

এএফপির খবরে বলা হয়, একই সঙ্গে সতর্কতা হিসেবে সেনা মোতায়েন করা হয়েছে ১৫ হাজার। সেনাদের অতিরিক্ত সংখ্যা দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ওয়াশিংটনে পৌঁছাতে শুরু করেছে।

মূলত ক্যাপিটলে দায়িত্ব পালনকারী ন্যাশনাল গার্ডের সদস্যরা শুধু লজিস্টিক সাপোর্ট দিত স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনকে। কিন্তু গেলো ৬ জানুয়ারি প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বিজয় সত্যায়নের অধিবেশনে উগ্র ট্রাম্প সমর্থকদের হামলায় ৫ জনের প্রাণহানির পর পরিস্থিতি বদলে যায়। ফলে ২০ জানুয়ারি বাইডেনের অভিষেকের দিন এ ধরনের ঝামেলা এড়াতে সেনাদের অস্ত্র বহনের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত সেনাদের সশস্ত্র টহল চলবে।

শুধু তাই না ওয়াশিংটনে জরুরি অবস্থা জারি থাকবে। সেদিন পর্যন্ত জরুরি অবস্থা অনুমোদন করেছেন বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

এদিকে কংগ্রেস ভবনে হামলা ও তাণ্ডবের সময় ন্যাশনাল গার্ড সেনাদের নিরস্ত্র অবস্থান ও দর্শকের ভূমিকায় থাকা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে অনেক সমালোচনা তৈরি হয়।

জনসন বলেন, ‘মারণাস্ত্র ব্যবহারের আগে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার জন্য বেসামরিক প্রতিরক্ষা পদ্ধতির সর্বোচ্চ ব্যবহার করবেন তারা।’

ক্যাপ্টেন জনসন বলেন, ফেডারেল ও লোকাল কর্তৃপক্ষের অনুরোধের পর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সহায়তা করার জন্য সশস্ত্র সেনা ব্যবহারের অনুমোদন দেন সামরিক বাহিনীর সচিব রায়ান ম্যাকারথি।

ন্যাশনাল গার্ড বাহিনীর ব্যুরো চিফ ড্যানিয়েল হকানসন বলেন, ‘আমরা চাই আমাদের সেনাদের আত্মরক্ষার অধিকার বজায় থাকুক।’