কটিয়াদীতে শখের তরমুজ চাষে লাখপতির স্বপ্ন

2 weeks ago
2:44 pm
465
অন্যান্য বিশেষ প্রতিবেদন কটিয়াদীতে শখের তরমুজ চাষে লাখপতির স্বপ্ন

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার করগাঁও ইউনিয়নের দেউপাশাবাগ গ্রামে ৫ বিঘা জমি লিজ নিয়ে সেখানে তিন জাতের তরমুজ চাষ করেন কলেজরপড়ুয়া তিন বন্ধু ফয়সাল, রাকিব ও রহমত উল্লাহ। তরমুজ চাষের মাত্র ৬৫ দিনের মাথায় তরমুজ বাজারজাত করার স্বপ্ন দেখছেন তারা।

এই উপজেলায় পূর্বে কখনো তরমুজের চাষ করা হয়নি। তবে তিন বন্ধুর শখের বসে করা এই ফসলই এখন স্বপ্ন দেখাচ্ছে তরুণ উদ্যোক্তাদের। পাঁচ বিঘা জমিতে গ্লোডেন ক্রাউন, ব্ল্যাক জাম্মু ও জেসমিন-২ এই তিন জাতের তরমুজ চাষ করে এলাকায় রীতিমতো সাড়া ফেলেছেন তারা। নতুন এই জাতের তরমুজ এই উপজেলায় প্রথম বলে জানিয়েছে কৃষি বিভাগ।

জানা গেছে, কলেজ পড়ুয়া তিন বন্ধুর সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ৫ বিঘা জমিতে তিন জাতের তরমুজ চাষবাদ করা হয়েছে। চাষাবাদের ৬৫ দিনের মাথায় গাছে ফলন আসতে শুরু করে। এখন পর্যন্ত চাষাবাদের খরচ পড়েছে প্রায় ৪ লাখ টাকা। সব কিছু ঠিক থাকলে এই জমির তরমুজ ১২ লাখ টাকা বিক্রি করা যাবে বলে জানায় সংশ্লিষ্টরা। এদিকে মাচায় তরমুজ চাষ দেখতে প্রতিদিন জমিতে ভিড় জমাচ্ছে আশপাশের এলাকার মানুষ। তারা বলছেন, আগামী বছর এলাকায় বাড়তে পারে তরমুজ চাষাবাদ।

স্থানীয়রা বলছেন, শখের বসে করা তরমুজ চাষে লাখপতি হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন কলেজ পড়ুয়া তিন বন্ধু ফয়সাল, রাকিব ও রহমত উল্লাহ। মাত্র ৬৫ দিনে তরমুজ চাষ করে রীতি মতো সাড়া ফেলেছেন ওই যুবকরা। চাষাবাদে ৪ লাখ টাকা ব্যয় হলেও ইতোমধ্যে ৮ লাখ টাকায় লাভবানের স্বপ্ন দেখছেন তারা। আর কৃষিবিভাগ বলছে, উন্নত কৃষি প্রযুক্তি ব্যবহার করেই লাভজনক ফসল চাষে ঝুঁকছেন অনেকেই।

কলেজ পড়ুয়া তিন বন্ধু রাকিব ভূইয়া, রহমত উল্লাহ ও ফয়সাল আহম্মেম জানান, তিন বন্ধুর সম্মিলিত প্রচেষ্টায় প্রথমে ক্যাপসিকাম চাষ করি। এতে সফলতার পথও দেখি আমরা। এরই ধারাবাহিকতায় ৫ বিঘা জমি লিজ নিয়ে তিন জাতের তরমুজ চাষাবাদ করি। আমরা আশা করছি, সবকিছু ঠিক ঠাক থাকলে প্রায় ১২ লাখ টাকা বিক্রি করা যাবে বলেও আশা প্রকাশ করেন।’

করগাঁও ব্লকের উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তা জাকির হোসেন জানান, ‘এই উপজেলায় তরমুজ চাষ ব্যতিক্রমী ফসল। অতিরিক্ত লাভের আশায় কলেজ পড়ুয়া তিন বন্ধু ফয়সাল, রাকিব ও রহমত উল্লাহথকে উদ্বুদ্ধ করা হয়। তারা দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রাখবেন বলে জানান এই কৃষি কর্মকর্তা।’