আস্থার নাম ‘উই’, পা রাখলো ১০ লাখে!

1 month ago
1:37 am
498
পজিটিভ বাংলাদেশ আস্থার নাম ‘উই’, পা রাখলো ১০ লাখে!

এক এক করে সদস্য যুক্ত হওয়ার পর আজ ১০ লাখ সদস্যের পরিবার উইমেন এন্ড ই-কমার্স ফোরাম ‘উই’। দেখতে দেখতে স্বপ্নের মতই যেন ১০ লাখ পরিবারের সদস্যের সংখ্যা দাড়ালো। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যেম ফেসবুকে বর্তমান সময়ের নারী উদ্যোক্তাদের একটি অনুপ্রেরণা আর আস্থার নাম ‘উই’। যেখানে লক্ষাধিক তরুণ-তরুণী স্বপ্ন নিয়ে বেঁচে আছে। নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করে সমাজে অন্যদেরও কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিচ্ছে ‘উই’ ফোরামের সদস্যরা।

২০১৭ সালে যাত্রা শুরু করে উইমেন এন্ড ই-কমার্স ফোরাম ‘উই’। এরপর থেকে ধীরে ধীরে নতুন নতুন তরুণ উদ্যোক্তারা ‘উই’ গ্রুপে যুক্ত হতে থাকে। সে সাথে বাড়তে থাকে গ্রুপের সদস্যের বিস্তার। গ্রুপটি মূলত দেশিপণ্যের প্রচার, প্রসার এবং বিক্রি বৃদ্ধি নিয়ে কাজ করে। কাজ করছে দেশিপণ্যের উদ্যোক্তাদের ই-কমার্সে টিকে থাকার দক্ষতা নিয়েও।

২০১৯ সালের আগস্ট মাসে ই-ক্যাবের ফাউন্ডার প্রেসিডেন্ট রাজিব আহমেদ ৩ হাজার সদস্যের গ্রুপটির হাল ধরেন। তারপর থেকে উইমেন এন্ড ই-কমার্স ফোরাম ‘উই’ দেশি পণ্যের জন্য কাজ শুরু করে। প্রায় ১ বছর কাজ করার পর এই গ্রুপে ১৫ লাখেরও বেশি পোস্ট লেখা হয়। গ্রুপটি শুরু থেকেই বাংলাদেশের নিজস্ব পণ্য নিয়ে কাজ করার পাশাপাশি নিয়মের কড়াকড়ির জন্যেই গ্রুপটির সদস্যের সংখ্যা দশ লক্ষের সদস্যে পরিণত হয়েছে।

আবেগ আপ্লুত হয়ে টেস্টবিডি’র প্রতিষ্ঠাতা সালমা নেহা বলেন ‘দেশীয় পন্যের একমাত্র ই-কমার্স ইন্ডাস্ট্রি উই। এই পরিবারের একজন সদস্য হিসেবে যুক্ত থাকতে পেরে গর্ববোধ করি। উই এর কারণে দেশী পন্যকে সাথে নিয়ে হাজারো নারী ও ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা দেশের অর্থনীতির চাকা সচল রাখছে। সেই সাথে নিজেদের সাবলম্বী করে তুলছে। আজকে উই ১০ লক্ষ সদস্যের একটি বিশাল পরিবার। আজকের এই অবস্থানের জন্য কৃতজ্ঞতা উই এর উপদেষ্টা শ্রদ্ধেয় রাজিব আহমেদ স্যার এবং উই এর প্রতিষ্ঠাতা নাসিমা আক্তার নিশা আপুর প্রতি। ১ মিলিয়ন এই বিশাল পরিবারের সবাইকে আন্তরিক অভিনন্দন ও ভালোবাসা জানান তিনি।’

কাকলী’স অ্যাটায়ার’র স্বত্ত্বাধিকারী কাকলি রাসেল তালুকদার আনন্দ প্রকাশ করে বলেন, ‘উই শুধু একটা ফোরাম না, বরং লাখো মানুষের আস্থা এবং আবেগের জায়গা। এই আস্থা তৃণমূল পর্যায়ের দেশী পণ্যের উদ্যোক্তাদের; এই আবেগ দেশীয় পণ্যের প্রতি দেশের মানুষের। উই এখন দশ লাখ সদস্যের পরিবার। আমাদের সবার একতা এবং কাজের প্রতি একাগ্রতা দেশীয় পণ্যের ই-কমার্স ইন্ডাস্ট্রির এগিয়ে চলার গতি এভাবেই অব্যাহত রাখবে এই কামনা করি। সবাইকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা।’

উই এর প্রেসিডেন্ট নাসিমা আক্তার নিশা কলম২৪.কমকে বলেন, ‘১০ লক্ষ পরিবার বর্গ এখন আমাদের উই। এই পরিবার বর্গের প্রত্যেকের প্রতি অসংখ্য ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। কারণ আপনাদের জন্যই আমাদের আজকের এই বিশাল উই। আপনারা না থাকলে উই এর অস্তিত্ব থাকতো না। তাই উইকে আপনাদের এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য অংশগ্রহণ সবসময় বেশি জরুরি। সদস্যেদের প্রত্যেককে পরামর্শ দিয়ে নিশা আরো বলেন, সকলে সৎ থাকবেন, ধৈর্য ধরবেন। ধৈর্য অনেক বড় একটা গুণ। যেটার মাধ্যমে আপনি অনেক দূর এগিয়ে যেতে পারবেন এবং এটা পরিক্ষীত। সবাইকে বলবো ধৈর্য ধরে উদ্যোগ টাকে সুন্দর ভাবে চালিয়ে নিয়ে যান। হার মেনে যাবেন না এবং অবশ্যই নিজের স্বপ্ন পূরনে এগিয়ে যেতে থাকেন।’

ই-ক্যাবের ফাউন্ডার প্রেসিডেন্ট ও ‘উই’ এর উপদেষ্টা রাজিব আহমেদ বলেন, ‘উইমেন এন্ড ই-কমার্স ফোরাম উই গ্রুপটি সার্চ ইংলিশের পর দ্বিতীয় গ্রুপ এটি। যেখানে ১ মিলিয়ন সদস্যে। বর্তমান সময়ে অনলাইনে দেশি পণ্যের এমন বড় ধরনের প্লাটফর্ম খুব দরকার ছিল। আমরা সৎ ভাবে আমাদের শিক্ষাকে কাজে লাগিয়ে টাকা আয় করার চেষ্টা করি। দুই নম্বর লোকের হাসাহাসিতে কি আসে যায়? দেশি পণ্যের ই-কমার্স ইন্ডাস্ট্রি যেহেতু প্রতিষ্ঠিত হয়ে গেছে তাই এতে যারা কাজ করছে তাদের সন্মান সুনাম সবই ধীরে ধীরে আসবে। এ জয়ে নিজেদের আরো উদ্যমী হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।’